বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন
১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ বসন্তকাল, ১৮ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি
ব্রেকিং নিউজ
২০৩৫ সাল নাগাদ দেশে ২ কোটি ২০ লাখ হতে পারে ডায়াবেটিস রোগী রিজার্ভ বাড়াতে আসছে অফশোর ব্যাংকিং, হচ্ছে আইন রোজায় সরকার নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য স্বাভাবিক রাখতে সকল প্রকার কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে পিএসসির প্রতিটি কাজে স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা ও প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিতের নির্দেশ রাষ্ট্রপতির পবিত্র রমজানে অফিস সকাল ৯ টা থেকে সাড়ে ৩ টা রমজান মাসে সরকারিভাবে বড় ধরনের কোনও ইফতার পার্টি না করার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী দালাল ধরতে বিভিন্ন হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান, আটক ৩৬ দ্বাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচিত সদস্যরা শপথ নিয়েছেন দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের পরীক্ষায় বার বার উত্তীর্ণ হয়েছে পুলিশ পুলিশ বাহিনী আজ একটি আধুনিক, যুগোপযোগী, দক্ষ, গতিশীল ও জনবান্ধব বাহিনী

রেকর্ড চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন নওয়াজ শরিফ

আন্তজার্তিক ডেস্ক
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ১৩ Time View
পাকিস্তানের এবারের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী পদে অন্যতম হেভিওয়েট প্রার্থী নওয়াজ শরিফ। তিনিই দেশটির পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন এমনটা দেশে-বিদেশে পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে। এর পেছনে মূল কারণ ছিল নওয়াজের প্রতি পরমাণু শক্তিধর দেশটির শক্তিশালী সেনাবাহিনীর সমর্থন। তবে সব প্রচেষ্টায় জল ঢেলে দেন পাকিস্তানের সাধারণ জনগণ। তারা নওয়াজের পিএমএল-এনের পরিবর্তে কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বেছে নেন।
গত বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) পাকিস্তানে জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের ভোট হয়েছে। ভোটগ্রহণের তিন দিন পর ২৬৫ আসনের মধ্যে অবশেষে ২৬৪ আসনের ফল ঘোষণা করা হয়েছে। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি ৯৭ আসনে জয় পেয়েছেন ইমরান খানের দল পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। এরপর পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ বা পিএমএল-এন ৭৬ আসনে, পাকিস্তান পিপলস পার্টি ৫৪ আসনে জয়ী হয়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য ছোট দল পেয়েছে ৩৭টি আসন।
এবারের নির্বাচনে পাকিস্তানের কোনো দল একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। যদিও ভোটের ফল ঘোষণা শুরুর পর একবার জাতীয় পরিষদে সাধারণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের দাবি করেছিলেন নওয়াজ। তবে কিছুক্ষণ পরই এমন দাবি থেকে সরে এসে জোট সরকার গঠনে মনোযোগ দেয় পিএমএল-এন। বর্তমানে দলটি নির্বাচনে তৃতীয় স্থানে থাকা পিপিপি ও অন্যান্য ছোট দলের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে সরকারে আসার চেষ্টা করছে। এমনকি রেকর্ড চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন দলের সর্বোচ্চ নেতা নওয়াজ।
নওয়াজ শরিফ পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। তবে কোনোবারই তিনি মেয়াদ পূর্ণ করতে পারেননি। শক্তিশালী সামরিক বাহিনীর বিরাগভাজন হয়ে যুক্তরাজ্যে চার বছর স্বেচ্ছানির্বাসনে কাটান। তবে গত বছর সেনাবাহিনীর সঙ্গে ‘সমঝোতা’ শেষে নির্বাসন কাটিয়ে দেশে ফেরেন তিনি।
পিএমএল-এনের এক নেতা পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডনকে বলেছেন, তাদের দলের প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী কে হবেন সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে নেতারা বিস্তৃত আলোচনা করছেন। এরপরই বিষয়টি পিপিপির সামনে প্রস্তাব আকারে দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত নওয়াজ শরিফকে প্রধানমন্ত্রী পদের প্রার্থী হিসাবে খারিজ করা হয়নি। যেহেতু পিএমএল-এনকে জোট সরকারের নেতৃত্ব দিতে হবে, তাই দলের অনেকেই প্রধানমন্ত্রী পদে নওয়াজ শরিফকে প্রার্থী করার কথা চিন্তা করছেন।
পিএমএল-এনের নেতা মরিয়ম আওরঙ্গজেব গতকাল সোমবার জিও নিউজ টিভির সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তারা এখনো প্রধানমন্ত্রী পদে কোনো প্রার্থী চূড়ান্ত করেননি। জোটের শরিকদের সঙ্গে আলোচনা করেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
তিনি বলেন, পিএমএল-এনের নেতা খাজা আসিফ যে ভিডিও বার্তা দিয়েছেন সেটা তার ব্যক্তিগত মতামত। এটা দলের কোনো কিছু না।
পিএমএল-এনের আসিফ সামা টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, নওয়াজ শরিফ পিএমএল-এনের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী হবেন না। তার পরিবর্তে তার ভাই শাহবাজ শরিফ তাদের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী।
More News Of This Category
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102